লিপস্টিক পরুন ঠোঁটের গড়ন অনুযায়ী

প্রতিদিন সাজগোজ করা হয় না নিয়ম মেনে, কিন্তু হাজার তাড়াহুড়োতেও ঠোঁটে একটু লিপস্টিক বুলিয়ে নিয়ে ভুল হয় না – এমন মেয়ে অনেক আছেন। মেকআপের একটা বড়ো জায়গা জুড়ে রয়েছে লিপস্টিক। ঠোঁটে একটু রঙের ছোঁয়াই বদলে দিতে পারে আমাদের পুরো চেহারাটাই! 

এই পর্যন্ত সবাই একমত হবেন নিশ্চয়ই! কিন্তু মনে রাখতে হবে আমাদের সবার ঠোঁটের আকার কিন্তু এক নয়! কারও ঠোঁট পাতলা, কারও পুরু, কারও একটু ছড়ানো, কারও বা উপরের ঠোঁট পুরু কিন্তু নিচের ঠোঁট পাতলা। এবার ঠোঁটের গড়ন যদি আলাদা হয়, তা হলে লিপস্টিক পরার ধরন সকলের এক হবে কী করে? একদম ঠিক ধরেছেন, ঠোঁটের গড়ন অনুযায়ী যদি লিপস্টিক পরেন, তা হলে আপনার মুখে নতুন ডাইমেনশন যোগ হবে। আপনাদের সুবিধের জন্য কিছু টিপস দিয়ে দিলাম আমরা

উপরের ঠোঁট পুরু হলে
1. ঠোঁটের মাঝখান থেকে শুরু করে লিপ লাইনার দিয়ে পুরো ঠোঁটের আউটলাইন এঁকে নিন।
2. নিচের ঠোঁটে যে রঙের লিপস্টিক পরবেন, তার চেয়ে দু’শেড গাঢ় রঙের লিপস্টিক পরুন উপরের ঠোঁটে। তাতে উপরের ঠোঁট পাতলা বলে মনে হবে।
অথবা পুরো ঠোঁটে একই শেডের লিপস্টিক পরুন, তারপর নিচের ঠোঁটের মাঝখানে সামান্য ক্রিম বেসড ন্যুড আইশ্যাডো লাগিয়ে ব্লেন্ড করে দিন।

নিচের ঠোঁট পুরু হলে
1. ঠোঁটের আউটলাইন এঁকে নিন। উপরের ঠোঁটের আউটলাইন স্বাভাবিক রাখবেন, নিচের ঠোঁটের রেখাটা আঁকবেন একটু ভিতরের দিক থেকে। নিচের ঠোঁট পাতলা দেখাবে।
2. উপরে আর নিচের ঠোঁটে একই শেডের লিপস্টিক পরুন, তারপর উপরের ঠোঁটের মাঝখানে ক্রিম বেসড ন্যুড ম্যাট আইশ্যাডো লাগিয়ে নিন, তাতে ব্যালান্স আসবে।

অসমান ঠোঁট
1. ঠোঁটের আউটলাইন যদি অসমান হয়, তা হলে লিপলাইনার ছাড়া আপনার চলবে না। নিখুঁতভাবে উপরের ও নিচের ঠোঁটের আউটলাইন আঁকুন যাতে ঠোঁট সমান দেখায়।
2. লিপলাইনার খুব হালকা হাতে সামান্য স্মাজ করে দিন, তাতে ন্যাচারাল লুক পাবেন।
3. এবার ভিতরের অংশে লিপস্টিক পরুন।

চ্যাপটা ঠোঁট
1. এই ঠোঁটের কোনও স্পষ্ট আউটলাইন থাকে না, ঠোঁট ডাইমেনশনহীন দেখায়। এরকম ঠোঁটে হালকা শেডের লিপস্টিক পরা সবচেয়ে ভালো, গাঢ় রঙে এই শেপের ঠোঁট আরও ছোট দেখায়।
2. স্বাভাবিক লিপ লাইনের সামান্য বাইরে থেকে আউটলাইন এঁকে নিন।
3. শিমারি অথবা ফ্রস্টি লিপস্টিক পরলে ঠোঁট ভরাট দেখাবে।
4. একই শেডের লিপস্টিক পরুন পুরো ঠোঁটে, তারপর উপরের ও নিচের ঠোঁটের ঠিক মাঝখানে শিমারি হাইলাইটার লাগিয়ে নিন। ঠোঁট পুরু দেখাবে।

পাতলা ঠোঁট
1. স্বাভাবিক লিপ লাইনের একটু বাইরে দিয়ে আউটলাইন আঁকুন, তারপর হালকা হাতে স্মাজ করে নিন।
2. নিচের ঠোঁটে গাঢ় শেডের লিপস্টিক পরুন, উপরের ঠোঁটে পরুন তার দু’ শেড হালকা রং। 
3. পরিষ্কার লিপ ব্রাশ দিয়ে স্মাজ করে দিলেই ঠোঁট ভরাট বলে মনে হবে।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *