মুক্তা মানেই সাদা আর পিঙ্ক মসৃণ গোলাকার আকৃতির? জেনে নিন বিভিন্ন আকৃতির এক মুক্তার নাম; ‘কাশী মুক্তা’

‘পপী শীড’ জাপানি শব্দ থেকে keshi শব্দের উৎপত্তি। keshi মুক্তা কি ব্যাখ্যা করার জন্যে প্রথমেই জানতে হবে keshi মুক্তা নয় কোনগুলো। কেশী মুক্তা সহজেই পাওয়া যায়না, কারন এটই মুক্তার একটি বিরিল প্রজাতি। এমনি জাপানিস সাগর ছাড়া এই মুক্তা পাওয়া খুব কষ্ট সাধ্য বেপার।

এই বিশেষ মুক্তা গঠ ন হতে সাত বছর বা কখন ও তার বেশি সময় লাগে। কারন এরা কঠিন পরিস্থিতিতে নির্মিত হয়ে থাকে। কেশী মুক্তার বিশেষত্ব হলো এরা বিভিন্ন আকৃতি, রঙিণ রঙ, আভা ও প্রাকৃতিক ভাবে নির্মিত হয়ে থাকে। কেশী মুক্তা বিশুদ্ধ সাদা থেকে ধূসর, গোলাপী, নীল, সবুজ ও হলুদ রঙের হয়ে থাকে। কাশী সম্পর্কে একটি অসাধরন বিষয় হলো,তাদের রঙ ও উজ্জ্বলতা অপরিবর্তীত রয়েছে যুগ যুগ ধরে। সারা পৃথিবী জুরে কেশী মুক্তার চাহিদা তাকলাগানোর মতোন শুধু মাত্র এদের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এবং এদের গুনাগুনের জন্যে।

বাংলাদেশে এই কেশী মুক্তার গহনা হাতে গুনা কিছু জায়গায় পাওয়া যায় তার মধ্য অনলাইন শপিং প্রতিষ্ঠান buynfeel.com অন্যতম।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *